এ যাত্রা যদি অন্তহীন হত

এ যাত্রা যদি অন্তহীন হত

দুইজন সাত বছরের বালক রাস্তা দিয়ে হাটছে।একজন বলল-শুন ভাই,বাবা কাল বলেছে,আমি বড় হলে পাখির মত উড়তে পারব।
আরেকজন মাথায় হালকা থাপ্পড় দিয়ে বলল-আরে গাধা,তোর বাবা কি বড় হয়নি?
-হু হয়েছে তো,অনেক বড়।
-উড়তে পারে?
-নাতো?
-এখন কিছু মাথায় ঢুকল?

ছেলেটা মাথায় হাত দিয়ে বলল-বাবা মিথ্যা কথা বলেছেন? না,সে হতে পারে না।মিথ্যা বলা যা খুব অপরাধ,এটা বাবাই বলেছে।
-আরে গাধা বাবুল,কবে যে তোর বুদ্ধি হবে?বড়রা মুখে অনেক কিছুই বলে,কিন্তু কাজের বেলায় শুধু অকাজই করে।
-এটাতো জানতাম না ভাই টাবুল,তুই কিভাবে বুঝলি আমাকে বলবি?
টাবুল পকেট হতে একটা রঙ্গিন চশমা বের করে।বাবুলকে চশমাটা পড়িয়ে দেয়।
-ভাই এই চশমাটা আমারে দিবি?আমারে এইটা দিবি,এইটা দিয়া সবকিছু খুব ভাল দেখা যাচ্ছে।
টাবুল তৎক্ষণাৎ চশমাটা নিয়ে নিল।
-ভাই চশমাটা নিলি কেন?দেনা ভাই?
-চুপ থাক।তোর চোখে এমনেতেই রঙ্গিন চশমা লাগানো আছে।তাই আশে পাশে কি ঘটছে কিছু বুঝতে পারিস না।
বাবুল চোখে হাত দিয়ে বলল-কই,নাতো ভাই?আমিতো সবকিছু সাদাকালোই দেখতে পাচ্ছি।
-চুপ বলদ।
-ভাই দেখ বিশাল বড় পাখি আকাশে উড়ছে।আবার পু পু করে বাশি বাজাচ্ছে।
-আরে ওটা পাখি না।দেখস না লম্বা মাথা।এটা জিরাফ হবে।
-ভাই জিরাফ আকাশে উড়তে পারে?
-আরে পশু পাখি সবাই আকাশে উড়তে পারে।
বাবুল মাথা চুলকাতে চুলকাতে বলল-তাইতো তাইতো ভাই,আমারতো মনেই ছিল না।কমলা খাবি,কমলা খাবি?
-দে দে।
-পকেটে।
টাবুল পকেটে হাত দিল।
-কিরে কমলা এত ছোট কেন?
-আরে এই পকেটে না,এই পকেটে না?

এই বলে বাবুল অপর পকেট হতে কমলা বের করে দেয়।টাবুল বলল-আগে বলবি তো,কি ধরতে কি ধরে ফেলেছি?
হাটতে হাটতে তারা স্কুলে ঢুকে পড়েছে।স্যার ক্লাস নিচ্ছে।স্যার ধমুক দিয়ে বলল-এই তোদের দেরি হল কেন?
টাবুল বলল-স্যার বাবুলের বাবা মা ঝগড়া করছিল।তাই।

-তাতে তোর দেরি হল কেন?
-বাবুল যে আমার ব্যাগ ওদের বাসায় নিয়ে গিয়েছিল।
-বাবুল বাবা মার ঝগড়া,তোর দেরি হল কেন?
বাবলু ব্যাগে হাত দিয়ে বলল-আমার ব্যাগ দিয়েই একে অপরের দিকে ঢিল মারতেছিল।
স্কুল হতে যাওয়ার পথে টাবুল বলল-তোরতো বেশ বুদ্ধি হয়েছে।

-তাইতো দেখছি।স্যারকে ওমন কথা বলে মার খাওয়া থেকে বেচে গেলাম।
এমন সময় তাদের সামনে এক পরী এসে হাজির।
-বল তোমরা কি চাও বালক?
টাবুল বলল-আমি ঘোড়ার পিঠে ঘুরে বেড়াতে চাই।
বাবুল বলল-আমি মেঘেদের সাথে ভেসে বেড়াতে চাই।
পরী বলল-তোমাদের ইচ্ছা এখনি পূর্ণ হবে।
টাবুল ঘোড়ার পিঠে উঠল।বাবুল ভেসে বেড়াতে লাগল মেঘেদের সাথে।তাদের আনন্দ বাঁধ ভাঙ্গল।মনে হল,এ যাত্রা যদি অন্তহীন হত!অনন্তকাল।

গল্পের বিষয়:
গল্প

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত